আজ || বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম :
  ফেনীর দাগনভূঞায় অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন স্মরণে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় কালান্তর গোষ্ঠীর আয়োজনে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন       দাগনভূঞা রিপোর্টার্স ইউনিটির ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞা অফিসার্স ক্লাব’র আয়োজনে দুই অফিসারের বিদায় সংবর্ধনা       ফেনীর দাগনভূঞায় এসিল্যান্ড মেহরাজ শারবীনের বিদায় সংবর্ধনা       বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল বাহরাইন শাখার উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত       বাহরাইনের স্পীকারের সাথে বাংলাদেশ দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সের সাক্ষাৎ       ফেনীর দাগনভূঞায় রেন্ট-এ কার শ্রমিক কল্যাণ সমবায় সমিতির ইফতার ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত       পবিএ মাহে রমজান উপলক্ষে ফেনী ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত    
 


মালয়েশিয়ায় ট্রাভেল পারমিট পেতে ভোগান্তিতে প্রবাসী বাংলাদেশিরা

মেহেদী হাসান:
সমস্যা যেন পিছুই ছাড়ে না মালয়েশিয়া প্রবাসী অনিয়মিত কর্মীদের। দীর্ঘ টানাপোড়নে থাকার পর গত পহেলা মার্চ হতে মালয়েশিয়া সরকার অনিয়মিত কর্মীদের স্বল্প টাকা জরিমানা দিয়ে দেশে ফেরার সুযোগ দিলে কিছুটা স্বস্তির নিঃশ্বাস পান প্রবাসীরা। এরই মধ্যে অনেকে ফিরেছেন দেশে আবার অনেকেই ফেরার অপেক্ষায়।

তবে যত বিপত্তি বাংলাদেশ হাইকমিশন কতৃক ইস্যুকৃত ট্রাভেল পারমিট নিয়ে। কারণ অনিয়মিত কর্মীদের (যাদের পাসপোর্ট নিজের কাছে নাই) মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশন হতে ট্রাভেল পারমিট নিতে হয়। প্রবাসীদের দ্রুত ট্রাভেল পারমিট সেবা প্রদানের লক্ষ্যেই গত কিছুদিন আগে উদ্ভোধন করা হয় ওয়ান স্টপ সার্ভিস।

কিন্তু প্রবাসীদের অভিযোগ, ওয়ান স্টপ সার্ভিসের পর সেবার মান এখন আরও কমেছে। প্রবাসীরা বলছেন, অতীতে একদিনে যেখানে শত শত ট্রাভেল পারমিট দিনে ডেলিভারি দিয়েছে, সেখানে বর্তমানে লাগছে দুই কার্য দিবস।
এতে করে দূর-দূরান্ত হতে আসা প্রবাসীরা পড়ছেন চরম ভোগান্তিতে।

প্রবাসীদের প্রশ্ন- পথেঘাটে যদি কোন পুলিশি ঝামেলা হয় তাহলে এর দায়ভার কি থার্ডপার্টি নেবে? আবার অনেকেই বলছেন, One Stop সার্ভিস দিতে না পারলে এই এক্সপার্ট কোম্পানির দরকার কি। শুধু শুধু হয়রানি। On the spot ট্রাভেল পারমিট দিতে না পারলে বন্ধ করে দেওয়া হোক।
৫/৭ ঘন্টা জার্নি করে দূর থেকে কুয়ালালামপুর এসে দিনে দিনে কাজ শেষ করে নিজ গন্তব্যে না ফিরতে পারলে কোথায় থাকবে এই লোক গুলো? সেই প্রশ্নও অনেকের। এ বিষয়ে বাংলাদেশ হাইকমিশন দ্রুত ব্যবস্থা নিবেন বলে প্রত্যাশা প্রবাসীদের।


Top