আজ || শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম :
  নিরাপত্তাহীনতায় ভোগছেন লন্ডন প্রবাসী তাজউদ্দিন সেকান্দার       ফেনীর দাগনভূঞায় পল্লী উদ্যোক্তাদের মাঝে বিআরডিবি’র ঋণ বিতরণ        ফেনী জেলা পুলিশের সাপ্তাহিক মাস্টার প্যারেড অনুষ্ঠিত       দাগনভূঞা সাংবাদিক কল্যাণ ট্রাস্ট’র ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত       বাহরাইন বিএনপির উদ্যোগে ঈদ পূর্ন মিলন ও আরাফাত রহমান কোকো স্মৃতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় দু’দিনের প্রশিক্ষণ শেষে কৃষকদের মাঝে গাছের চারা ও বীজ বিতরণ       ফেনীর দাগনভূঞায় বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা ফুটবল টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় তথ্য আপা’র উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় পাইথন প্রোগ্রামিং বিষয়ক প্রশিক্ষণের উদ্বোধন       ফেনী ইউনিভার্সিটিতে ক্যারিয়ার এক্স প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত    
 


বর্ণাঢ্য আয়োজনে ফেনী ইউনিভার্সিটির ১০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

মো.স্বপন মজুমদার:
বর্ণাঢ্য আয়োজনে ফেনী ইউনিভার্সিটির ১০তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে আজ (শনিবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২৩) সকাল ১০ টায় ফেনী ইউনিভার্সিটি প্রশাসনিক ভবন চত্বর থেকে জাতীয় সঙ্গীতের সঙ্গে জাতীয় পতাকা ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলন করা হয়।

এরপর সকাল সাড়ে দশ টায় ফেনী ইউনিভার্সিটির শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা বের করা হয়। এতে নেতৃত্ব দেন ফেনী ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. এম জামালউদ্দীন আহমদ।

শোভাযাত্রাটি শিশু নিকেতন কালেক্টরেট স্কুল থেকে শুরু হয়ে গ্রান্ড ট্রাঙ্ক রোড মোড় প্রদক্ষিণ করে পুনরায় শিশু নিকেতন কালেক্টরেট স্কুলে এসে শেষ হয়। বিশ্ববিদ্যালয় দিবস উপলক্ষে ইউনিভার্সিটি প্রাঙ্গনে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়।

অধ্যাপক ড. এম জামালউদ্দীন আহমদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফেনী ইউনিভার্সিটির প্রতিষ্ঠাতা প্রেসিডেন্ট এবং ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য আব্দুস সাত্তার।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে আব্দুস সাত্তার বলেন, আজ থেকে এগারো বছর আগে তিনি ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠার স্বপ্ন দেখেন। তার লালিত স্বপ্নের কথা বিভিন্ন জনকে প্রকাশ করলে কেউ কেউ একমত আবার কেউবা দ্বিমত পোষণ করেন। এসবকিছু সত্ত্বেও তিনি ইউনিভার্সিটি প্রতিষ্ঠাকে বাস্তবে রূপ দেয়ার জন্য স্রস্টার প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

তিনি আরও বলেন, এই পর্যন্ত আমি যা কিছু প্রতিষ্ঠা করবার ইচ্ছে পোষণ করেছি, সবকছুই প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি, তিনি ফেনী ইউনিভার্সিটির উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ কামনা করে তার সংক্ষিপ্ত বক্তব্য সমাপ্ত করেন।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক ড. এম জামালউদ্দীন আহমদ বলেন, প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে আজ পর্যন্ত ফেনী ইউনিভার্সিটি কাঙ্ক্ষিত মান বজায় রাখতে নিরন্তর প্রয়াস অব্যাহত রেখেছে। প্রযুক্তির অপব্যবহার রোধ, জ্ঞানভিত্তিক, তথ্যপ্রযুক্তি নির্ভর, মানবিক, অরাজনৈতিক ও অসাম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ফেনী ইউনিভার্সিটি তার শিক্ষার্থীদের গড়ে তুলছে।

তিনি আরও বলেন,সময়ের চাহিদা অনুযায়ী ফেনী ইউনিভার্সিটি তাদের পঠন-পাঠন পদ্ধতিতে পরিবর্তন এনে শিক্ষার্থীদের স্মার্ট গ্রাজুয়েট এবং দেশ গড়ার কারিগর হিসেবে গড়ে তুলতে বদ্ধপরিকর। এছাড়া, তিনি গবেষণায় ফেনী ইউনিভার্সিটির
অবদান তুলে ধরেন।

সবশেষে আজকের অনুষ্ঠান সফল করবার জন্য সংশ্লিষ্ট সবাইকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করে সভাপতির বক্তব্য শেষ করেন, স্বাগত বক্তব্য রাখেন ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডিন এবং সহযোগী অধ্যাপক মোহাম্মদ আবুল কাশেম, আলোচনা সেশন শেষে শুরু হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এই পর্বে ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে। তারা নাচ,গান, কবিতা, অভিনয়ের মাধ্যমে পুরো আয়োজনকে মাতিয়ে রাখেন।

এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন ফেনী ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার অধ্যাপক তায়বুল হক, রেজিস্ট্রার এএসএম আবুল খায়ের, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মোহাম্মদ হারুন আল রশীদ, ডেপুটি রেজিস্ট্রার মোহাম্মদ শাহ আলম, প্রোক্টর মো: আয়াতুল্লাহ, স্টুডেন্ট অ্যাডভাইজার মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ আল ইউনুস সহ শিক্ষক-কর্মকর্তা ও শিক্ষার্থীবৃন্দ।


Top