আজ || বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪
শিরোনাম :
  ফেনীর দাগনভূঞায় অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন স্মরণে স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় কালান্তর গোষ্ঠীর আয়োজনে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞায় নানা আয়োজনে বাংলা নববর্ষ উদযাপন       দাগনভূঞা রিপোর্টার্স ইউনিটির ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত       ফেনীর দাগনভূঞা অফিসার্স ক্লাব’র আয়োজনে দুই অফিসারের বিদায় সংবর্ধনা       ফেনীর দাগনভূঞায় এসিল্যান্ড মেহরাজ শারবীনের বিদায় সংবর্ধনা       বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল বাহরাইন শাখার উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত       বাহরাইনের স্পীকারের সাথে বাংলাদেশ দূতাবাসের চার্জ দ্য অ্যাফেয়ার্সের সাক্ষাৎ       ফেনীর দাগনভূঞায় রেন্ট-এ কার শ্রমিক কল্যাণ সমবায় সমিতির ইফতার ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত       পবিএ মাহে রমজান উপলক্ষে ফেনী ইউনিভার্সিটির আইন বিভাগের উদ্যোগে ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত    
 


ফেনীর দাগনভূঞায় স্তন ও জরায়ুমুখে ক্যান্সার সচেতনতা বিষয়ক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

দাগনভূঞা প্রতিনিধি:
দাগনভূঞা উপজেলার রাজাপুর স্কুল এন্ড কলেজের ছাত্রীদের মাঝে স্তন ও জরায়ুমুখে ক্যান্সার সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৭ ফেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের সার্বিক সহযোগিতায় ও স্বেচ্ছায় রক্তদান ও সামাজিক সংগঠন উই ফর ব্লাডের আয়োজনে রাজাপুর স্কুল এন্ড কলেজের শ্রেণিকক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও সংগঠনটির সিনিয়র সদস্য আনোয়ার হোসেনের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন রাজাপুর স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ মমিনুল হক, স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা.আরিফ হোসেন ও দাগনভূঞা প্রেসক্লাবের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল মামুন। এসময় উই ফর ব্লাডের নারী সদস্যবৃন্দ ও ওই স্কুল এন্ড কলেজের নারী শিক্ষকবৃন্দসহ  প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বক্তারা বলেন, সমাজের অর্ধেক অংশই হল নারী। জরায়ু ও স্তন ক্যান্সার বড় ধরনের একটি ঘাতক ব্যাধি। শুরুতে এ ক্যান্সার নির্ণয় করতে পারলে অনেক মা-বোনদের জীবন রক্ষা করা সম্ভব।

উই ফর ব্লাডের সংশ্লিষ্টরা জানান, শিক্ষার্থীদের মাঝে স্তন ও জরায়ুমুখ ক্যান্সার সচেতনতা ছড়িয়ে দিতে এমন আয়োজন। এ সমস্যাগুলো সাধারণত অসচেতনতার কারণে সংঘটিত হয়। আমাদের মায়েরা এ ক্যান্সার সম্পর্কে অসচেতন থাকেন এবং এর প্রতিরোধে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেন না। আমরা প্রত্যাশা করি মেয়েদেরকে যদি এ বয়সে এ বিষয়ে সচেতন করা যায় তাহলে এ রোগটি ক্রমন্বয়ে হ্রাস পাবে।

শেষে স্তন ও জরায়ুমুখে ক্যান্সার বিষয়ে কুইজ প্রতিযোগিতায় ৫জন বিজয়ী শিক্ষার্থীদের পুরস্কৃত করা হয়।এছাড়াও সংগঠনটির সেরা স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে তিনজনকে সম্মাননা স্মারক ক্রেস্ট প্রদান করা হয়। তারা হলেন-ওমর ফারুক ফারেজ, আরমান চৌধুরী অংকন ও মুন্তাছির আল মাহমুদ।


Top